বিদ্যালয়ের ইতিহাস : উজানচর কে এন উচ্চ বিদ্যালয়

উজানচর কে এন উচ্চ বিদ্যালয়

ফিরে যাই একশত বছর আগে। বঙ্গভঙ্গ ও বঙ্গভঙ্গ রদের সামাজিক অভিঘাতে জর্জরিত পূর্ব বাংলার গ্রামগুলো। এ সময় কাল পর্যন্ত ধূলোমাখা, কর্দমাক্ত , মেঠো বাংলায় না ছিল ভালো যোগাযোগ ব্যবস্থা, না ছিল শিক্ষা। গ্রামগুলো ছিল শহর থেকে দূরে খানিকটা বিচ্ছিন্ন ও কৃষি নির্ভর । লেখা পড়ার প্রয়োজনীয়তা অনুধাবনে অক্ষম এক জনগোষ্ঠীর আবাসস্থল। বাংলায় তখন জমিদারী প্রথা ছিল, জমিদাররা কেউ কেউ অত্যাচারী , জুলুমবাজ হলেও – দান ও প্রজাবৎসল বলে কারো কারো খ্যাতি ছিল। এ অঞ্চলের জমিদার স্বর্গীয় ভগবান চন্দ্র রায় ও দ্বারকানাথ চন্দ্র রায় ছিলেন দানশীল ও শিক্ষানুরাগী । এই মহান ভাতৃদ্বয়ের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় ও আন্তরিকতায় অনগ্রসর এতদঞ্চলের শিক্ষা বিস্তারের লক্ষে ১৯০৫ সালের ২ রা ফেব্রুয়ারী ৫.২১ একর জমির উপর তাদের পিতামহের নামে বিদ্যালয়টি স্থাপন করেন, যার নাম উজানচর কে এন উচচ বিদ্যালয়।

শত বর্ষের প্রাচীন এই বিদ্যালয়টির অতীত ইতিহাস অত্যন্ত সমৃদ্ধ । প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে অধ্যাবদি শিক্ষা বিস্তারে একটি অনন্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃত। সেকালে শিক্ষা কেবল সনদ দিত না , শিক্ষা সনদ ও দিত। শিক্ষা মানুষকে জাতে তুলতো, জামা-কাপড় পরতে শেখাতো, সব মিলিয়ে সুবিধা বঞ্চিত মানুষের মুখে দিত ভাষা । যাতে সে কথা বলতে পারে। উচচ শিক্ষার প্রয়োজন কে অনুভব করতে পারে ও বুঝতে পারে ভাত-কাপড় বাসস্থানের মতো সমান গুরুত্ব নিয়ে লিখতে হয়, পড়তে হয়। অত্র বিদ্যালয়টি এ অঞ্চলকে বিগত ১১০ বছরের অধিক সময় ধরে ভাষা দিয়েছে, আলো দিয়েছে , দিয়েছে ভাবনাও।

গণতন্ত্র , আধুনিকতা আর বিশ্বায়নের দরজা দিয়ে আসা যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি তথ্য-প্রযুক্তি মুঠো ফোনের কল্যাণে সমগ্র পৃথিবীর জ্ঞানের সাথে বিদ্যালয়টির যোগসূত্র স্থাপিত হয়েছে । এ বিদ্যালয়ের ওয়েব সাইটটি সবাইকে তথ্য দিবে অনাগত সময় ধরে। ১ শত বৎসর এক জন মানুষের জীবন দীর্ঘ সময় । কিন্তু মহাকালের প্রবাহে ১০০ বৎসর খুব বেশি সময় নয়। অজস্র , অসংখ্য আলোকিত শিক্ষার্থী ও মানুষ তৈরীর এক জলজ্যান্ত কারখানা হয়ে তিতাস বিধৌত আলোর দিশারী প্রাচীন এই বিদ্যাপীঠটি আরো অনেক কচি প্রাণ কে সপ্ন দেখাবে ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ বিনির্মাণে ।

উজানচর কে এন উচচ বিদ্যালয়ের ১১০ বছরের ইতিহাস কথা রাখার ইতিহাস, অঙ্গিকারকে বাস্তবে রুপ দেয়ার ইতিহাস । ‘মহৎ শিক্ষা উত্তম জীবন ’ এই শ্লোগান নিয়ে ১৯০৫ সালে এই বিদ্যালয়টি যাত্রা শুরু করেছিল। আজও সেই ব্রত নিয়ে পথ চলছে দুর্নিবার । বিদ্যালয়ের কোলাহল মুক্ত , শান্ত-শ্যামল-সবুজে সু-শোভিত মনোরম পরিবেশের মাঝে এ প্রতিষ্ঠানের নান্দনিক অবকাঠামো সমৃদ্ধ বৈজ্ঞানিক গবেষণাগার ও বিভিন্ন সহপাঠ উপকরণসহ শিক্ষার আধুনিক ও অনুকূল বৈশিষ্টমণ্ডিত ক্যামপাস ছাত্র-ছাত্রীদের মানুষ গঠনের সহায়ক হবে। একজন মা যেমন তার সন্তানকে পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে নিরলস কাজ করে যান তেমনি এ বিদ্যাপীঠটি শিক্ষার্থীদের সুনাগরিক রুপে গড়ে তুলতে নিরন্তর দায়িত্ব পালন করে চলছে। সু-শৃঙ্খল , সু-শিক্ষিত ও দেশ প্রেমিক জাতিগঠন এ বিদ্যালয়ের মূল লক্ষ্য।

দায়িত্বশীল ও নিবেদিত প্রাণ প্রতিষ্ঠান হিসেবে আত্মপ্রকাশ এর মাধ্যমে একটি প্রগতিশীল জাতি গড়ে তোলাই বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের মুখ্য উদ্দেশ্য , আর এর জন্য চাই সব মহলের সহযোগিতা। কালের প্রবাহে অনেক ঘটনা অতীতের গর্ভে বিলীন হয়ে যায়, আবার কিছু কিছু ঘটনা ইতিহাসে ঠাঁই করে নেয়। উজানচর কে এন উচ্চ বিদ্যালয়ের শতাব্দীর নানা গৌরব ও অর্জনের ইতিহাস এ বিদ্যালয়কে হিমালয় উচ্চতায় পৌঁছে দিবে।